কোনো বেলুন মহাকর্ষের বিপরীতে উপরের দিকে এগিয়ে যাওয়ার শক্তি কোথায় পায়?

মহাকর্ষ ও অভিকর্ষ: মহাকর্ষ একটি প্রাকৃতিক ঘটনা যা দ্বারা সকল বস্তু একে অপরকে আকর্ষণ করে। এটির সংজ্ঞা হিসেবে বলা যায় যে, যেকোনো ভরের বস্তুদ্বয় একে অপরকে যে বলে আকর্ষণ করে তা হলো মহাকর্ষ। এখন এই আকর্ষণ যদি পৃথিবী ও অন্য কোন বস্তুর মাঝে হয় তাহলে তাকে বলা হবে অভিকর্ষ।

বিজ্ঞানী নিউটন সর্বপ্রথম মহাকর্ষ বলের গাণিতিক ব্যাখ্যা প্রদান করেন। এটি নিউটনের মহাকর্ষ সূত্র নামে পরিচিত।

নিউটনের মহাকর্ষ সূত্র: এই বিশ্বে যে-কোনো দুটি বস্তুকণা তাদের সংযোজী সরলরেখা বরাবর পরস্পরকে আকর্ষণ করে। এই আকর্ষণ বল কণাদুটির ভরের গুণফলের সমানুপাতিক এবং তাদের দূরত্বের বর্গের ব্যস্তানুপাতিক।

এ সূত্রানুসারে যদি দুটি বস্তুর ভর যথাক্রমে m1 ও m2 এবং মধ্যবর্তী দূরত্ব r হল তবে,

মহাকর্ষ বল, F ∞ m1m2 এবং F ∞ 1/r2

অর্থাৎ, বস্তুর ভর যত বেশি হয়, মাধ্যাকর্ষণের প্রভাবে তার ওজনও তত বেশি। আবার, দূরত্ব বেশি হলে, মাধ্যাকর্ষণ এর প্রভাব তত গুণ কম হবে।

ব্যাপন: পরস্পরপরস্পর রাসায়নিক বিক্রিয়া করে না এরূপ কয়েকটি গ্যাসকে কোন পাত্রে রাখলে তারা পরস্পরের সঙ্গে মিশে সমসত্ব মিশ্রণ তৈরি করে। গ্যাসের এই ধর্মকে ব্যাপন বলে। অতএব, গ্যাসের ব্যাপন ক্রিয়া ঘটে। গ্যাসের ব্যাপন ক্রিয়া গ্যাস অনুগুলির গতিশীলতা প্রমাণ। বিশেষ দ্রষ্টব্য: গ্যাসের গতি উষ্ণতার উপর নির্ভর করে।

অর্থাৎ, দুটি ভিন্ন পাত্রে দুটি ভিন্ন ঘনত্বের গ্যাস কে রেখে একটি নল দিয়ে পাত্র দুটি সংযোগ করা হয়। তাহলে দেখা যাবে যে, বেশি ঘনত্বের গ্যাসটি কম ঘনত্বের গ্যাসীয়পাত্রটি দিকে ধাবিত হয় এবং সমসত্ব মিশ্রণ তৈরি করে এবং পত্রদুটিতে সমঘনত্ব এরসৃষ্টি হয়।

প্রশ্নানুসারে, যে গ্যাসীয় অনুর ভর যত বেশি হয় পৃথিবীর অভিকর্ষ বল তারপর তত বেশি ক্রিয়া করে তাই ক্রমানুসারে পৃথিবীপৃষ্ঠ থেকে উপরের দিকে ভারী গ্যাস থেকে হালকা গ্যাস অবস্থান করে। এই উচ্চতা অনুসারে গ্যাসীয় অনুগুলির অবস্থান এর উপর নির্ভর করে পৃথিবী মন্ডলের স্তরবিন্যাস করা হয় (ট্রপোস্ফিয়ার, স্ট্রাটোস্ফিয়ার, মেসোস্ফিয়ার, থার্মোস্ফিয়ার, এক্সোস্ফিয়ার, ম্যাগনেটোস্ফিয়ার)।

ট্রপোস্ফিয়ারের ঘনত্ব > স্ট্রাটোস্ফিয়ার এর ঘনত্ব>…>এক্সোস্ফিয়ার এর ঘনত্ব

হাইড্রোজেন গ্যাস এর পারমাণবিক গুরুত্ব (পারমাণবিক ভর) অন্যান্য গ্যাসের তুলনায় কম হয়ে থাকে ফলে হাইড্রোজেন এর ঘনত্ব অন্য গ্যাসের তুলনায় কম হয়ে থাকে। এই ঘনত্ব পার্থক্যের জন্য গ্যাসীয় গতির সৃষ্টি হয়। এই গ্যাসীয় গতির জন্যে হাইড্রোজেন গ্যাস ট্রপস্ফিয়ার স্তর থেকে এক্সোস্ফিয়ার স্তরের দিকে অগ্রসর হয় হাইড্রোজেন গ্যাসের ভর খুব কম হয়ায় অভিকর্ষ বল এই গতি আটকাতে পারেনা। তাই কোনো বেলুন মহাকর্ষের বিপরীতে উপরের দিকে এগিয়ে যায়।

Arghyadeep Mondal

I am Student of Physics

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published.